logo
   প্রচ্ছদ  -   জাতীয়

আজ গণতন্ত্র মুক্তি দিবস
Posted on Dec 06, 2018 11:37:26 AM.

আজ গণতন্ত্র মুক্তি দিবস

আজ ৬ ডিসেম্বর, গণতন্ত্র মুক্তি দিবস। ১৯৯০ সালের এই দিনে বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী জনতার প্রতিবাদ, প্রতিরোধ আন্দোলন ও গণঅভ্যুত্থানের মুখে স্বৈরশাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পতন ঘটে। 

মুক্তি পায় গণতন্ত্র। হাঁফ ছেড়ে বাঁচে দেশের মানুষ। দিবসটি পালন উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করবে।

১৯৮২ সালের ২৪ মার্চ এক রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের পর এরশাদ সরকার দেশের রাজনীতি থেকে সংস্কৃতি, সব ক্ষেত্রে গণবিরোধী ধারা প্রবর্তন করে। রাজনৈতিক নেতা ও ছাত্র আন্দোলনের কর্মীরা ব্যাপক নিপীড়নের শিকার হন। একপর্যায়ে সারাদেশে এরশাদবিরোধী যুগপৎ আন্দোলন গড়ে ওঠে এবং এরশাদ সরকারের পতন ঘটে।

১৯৯০ সালের ১০ অক্টোবর সচিবালয় ঘেরাও কর্মসূচির মাধ্যমে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলনের সূচনা হয়। ঢাকা পলিটেকনিকের ছাত্র মনিরুজ্জামান হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সব ছাত্রসমাজ ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করার প্রত্যয় ঘোষণা করে। ১৯৮৭ সালের ১০ নভেম্বর হরতালের সময় নূর হোসেনকে স্বৈরাচার এরশাদের বাহিনী গুলি করে। যার বুকে-পিঠে ‘স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক’ লেখা ছিল।

অন্যদিকে, ওই দিন সেনা ও পুলিশ বাহিনী আমিনুল হুদা টিটোকে মেরে গুম করে। এ ঘটনায় সব মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে এরশাদকে হটানোর আন্দোলনে নেমে পড়ে। এভাবে ঘটনাক্রমিক আন্দোলন-সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় এরশাদ পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

দীর্ঘ প্রায় ৯ বছরের শাসনের অবসান ঘটে ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর। স্বৈরশাসক এরশাদের পতনের পর থেকে দিবসটিকে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল বিভিন্ন নামে পালন করে আসছে। দিনটিকে আওয়ামী লীগ ‘গণতন্ত্র মুক্তি দিবস’, বিএনপি ‘গণতন্ত্র দিবস’ এবং এরশাদের জাতীয় পার্টি ‘সংবিধান সংরক্ষণ দিবস’ হিসেবে পালন করে থাকে। অন্য রাজনৈতিক দলগুলো এটিকে ‘স্বৈরাচার পতন দিবস’ হিসেবেও পালন করে।

দিবসটি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্র, সংবিধান, আইনের শাসন ও মানবাধিকার সমুন্নত রাখতে অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা দেশে গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধ করেছি। আমরা সপরিবারে জাতির পিতার হত্যার বিচারের রায় কার্যকর করেছি। জাতীয় চার নেতা হত্যার বিচার সম্পন্ন হয়েছে।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   ৫০ বছরে ‘বঙ্গবন্ধু’ ও জাতির পিতা উপাধি
   ফুটপাত দখলমুক্ত করতে গুলিস্তানে পুলিশের অভিযান
   পুরান ঢাকায় আর রাসায়নিকের ব্যবসা নয় : প্রধানমন্ত্রী
   ওয়াহেদ ম্যানশনের কেমিক্যাল অপসারণ শুরু
   বিএনপির চকবাজার ট্র্যাজেডি নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়: কাদের
   জনগণ ভালো থাকলে কিছু লোক অসুস্থ হয়ে পড়ে : প্রধানমন্ত্রী
   আজ বার্ন ইউনিটে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
   কেউ বাঙালি সংস্কৃতি ধ্বংস করতে পারবে না : প্রধানমন্ত্রী
   চকবাজারে আগুন: নিহত স্বজনের মামলা
   একুশ শতকের উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি জীবনব্যাপী শিক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী
   আগুনে প্রাণহানির ঘটনায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শোক
   চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানিতে প্রধানমন্ত্রীর গভীর শোক
   ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করলেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী
   যেভাবে পেলাম ২১শে ফেব্রুয়ারি
   শপথ নিলেন নারী এমপিরা
   সৌদি থেকে ফিরে আসলেন ৬২ নারী শ্রমিক
   দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী
   বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তায় নৌপথ ও স্থলবন্দরগুলো আরো বেশি গতিশীল হবে
   আজ পদ্মা সেতুতে বসছে অষ্টম স্প্যান
   বিনিয়োগে আমিরাতের সাড়া
   আজ আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা
   ‘জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় বিশ্ব নেতাদের এগিয়ে আসতে হবে’
   রাজধানীতে বৃষ্টি
   জার্মানি সফর শেষে আবুধাবিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
   জার্মানি সফর শেষে আবুধাবি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
   বদির তিন ভাইসহ ১০২ মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ
   শতাধিক ইয়াবা ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ আজ
   আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো প্রথম পর্বের ইজতেমা
   ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস ও ঐতিহ্য নিয়ে আরো বেশি কাজ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি
   বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে এসেছিল অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে : প্রধানমন্ত্রী


  পুরনো সংখ্যা