logo
   প্রচ্ছদ  -   জাতীয়

আজ হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৫তম মৃত্যুবার্ষিকী
Posted on Dec 05, 2018 11:42:08 AM.

আজ হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৫তম মৃত্যুবার্ষিকী

আজ বুধবার ৫ ডিসেম্বর গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৬৩ সালের এইদিনে লেবাননের রাজধানী বৈরুতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। তার মৃত্যুবার্ষিকীতে দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।


দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণী দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, ‘সোহরাওয়ার্দী আমৃত্যু আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছেন। গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গণতন্ত্রের বিকাশসহ ও এদঞ্চলের জনগণের আর্থসামাজিক উন্নয়নে যে অবদান রেখে গেছেন জাতি তা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি বিকাশে সারাজীবন কাজ করেছেন। গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা ও মানুষের কল্যাণে এ মহান নেতার জীবন ও আদর্শ আমাদের প্রেরণা জোগায়।’

সকালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে হাইকোর্ট সংলগ্ন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন ও ফাতেহা পাঠ করা হয়েছে।

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীসহ তিন নেতার মাজার

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের পর বাঙালির যে জাতীয়তাবাদী চেতনার উন্মেষ ঘটেছিল, তার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। তার রাজনৈতিক দূরদর্শিতার ফল ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট এবং অবিস্মরণীয় বিজয়। গণতান্ত্রিক রীতি ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ছিলেন, তাই সুধী সমাজে তিনি ‘গণতন্ত্রের মানসপুত্র’ বলে আখ্যায়িত হন। শহীদ সোহরাওয়ার্দী পাকিস্তানের সামরিক স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে এদেশের শান্তিপ্রিয় গণতন্ত্রকামী মানুষের আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর থেকে তিনি মুসলিম লীগ সরকারের একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভূমিকা পালন করেন। কেবল একজন রাজনৈতিক নেতাই নন, তিনি ছিলেন একজন দূরদর্শী রাষ্ট্রনায়কও। তার প্রচেষ্টায় ১৯৬৫ সালে পাকিস্তানের প্রথম সংবিধান প্রণীত হয়।

বর্তমান পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৮৯২ সালের ৮ সেপ্টেম্বর হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন বিচারপতি স্যার জাহিদ সোহরাওয়ার্দীর কনিষ্ঠ সন্তান। কলকাতার সেইন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিষয়ে তিনি স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আরবি ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯১৩ সালে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান তিনি। যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি বিজ্ঞান বিষয়ে সম্মানসহ স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

এছাড়া সেখানে তিনি আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং বিসিএল ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯১৮ সালে গ্রেস ইন হতে বার এট ল ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর ১৯২১ সালে কলকাতায় ফিরে এসে আইন পেশায় নিয়োজিত হন।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   বিজয় উদযাপনে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ
   ২৪ ডিসেম্বর থেকে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত মাঠ পর্যায়ে সেনাবাহিনী থাকবে : ইসি সচিব
   মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতীয় স্মৃতিসৌধ কেন্দ্রিক ট্রাফিক নির্দেশনা
   ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজ জেতায় টাইগারদের রাষ্ট্রপতির অভিনন্দন
   ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজ জেতায় টাইগারদের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
   বিএনপি দেশের রাজনীতিকে অপরাধ জগতে নিয়ে গেছে : শেখ হাসিনা
   প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে যে বার্তা পেল তরুণরা
   জাতির কলঙ্কময় দিন আজ
   হেঁটে জুম্মার নামাজের যাওয়ার ফজিলত
   বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
   শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ
   আগামীকাল শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস
   ৫ জানুয়ারির কথা ভুলে গেলে চলবে না: সিইসি
   ২০১৪ সালের পরিস্থিতি সৃষ্টির পাঁয়তারা হচ্ছে কি না সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে : সিইসি
   বুকের রক্ত দিয়ে আপনাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করব: শেখ হাসিনা
   মহিলাবিষয়ক অধিদফতরের প্রকল্পে ১০৮৬১ নিয়োগ
   সাড়ে ৩ লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা
   আস্থার পরিবেশ তৈরি করতে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের প্রতি সিইসির নির্দেশ
   আজ নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করছেন প্রধানমন্ত্রী
   আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস
   টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের পদত্যাগের পর চার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টন
   আস্থার পরিবেশ তৈরি করতে ম্যাজিস্ট্রেটদের প্রতি সিইসির নির্দেশ
   মানবাধিকার দিবস পালন
   সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি
   বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ
   মাশরাফির আসনে প্রার্থী দিল জাতীয় পার্টি
   আজ প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণা শুরু
   টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি
   কক্সবাজারে ৪১১ জন এইডস আক্রান্ত
   জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও মাদক থেকে সন্তানকে দূরে রাখতে মায়েদের বেশি ভূমিকা পালনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


  পুরনো সংখ্যা