logo
   প্রচ্ছদ  -   জাতীয়

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।
Posted on Aug 13, 2017 12:09:22 PM.

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত আসামি জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল শুনানির জন্য আগামী ১০ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।


একই সঙ্গে আগামী ২৪ আগস্টের মধ্যে দুই আসামি এবং রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলের সারসংক্ষেপ আদালতে জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগ শুনানির জন্য এই দিন ধার্য করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং আসামি জামায়াত নেতা আজহারুলের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদিন এবং সৈয়দ মো. কায়সারের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান।

এ টি এম আজহারুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার রায় ঘোষণা করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৫তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি ষষ্ঠ রায়। রায়ে বলা হয়, আসামি আজহারের বিরুদ্ধে আনীত ছয়টি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে ২, ৩ ও ৪ নম্বর অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ, ৫ নম্বর অভিযোগে তাকে ২৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশ ও ৬ নম্বর অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

১ নম্বর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে ওই অভিযোগ থেকে অব্যাহতি (খালাস) দেওয়া হয়। এ মামলায় ট্রাইব্যুনালের আদেশে রাজধানীর মগবাজারে নিজ বাসা থেকে ২০১২ সালের ২২ আগস্ট আজহারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৪তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি পঞ্চম রায়। কায়সারকে ২০১৩ সালের ২১ মে গ্রেপ্তার করা হয়। শারীরিক অসুস্থতার কারণে বিচার চলাকালে পুরো সময় তিনি শর্তসাপেক্ষে জামিনে ছিলেন। এ দুই আসামিই ট্রাইব্যুনালের দণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের করেন।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   দেশে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি
   এসবি’র পুলিশ পরিদর্শক মামুন হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৪
   আগামীকাল থেকে দু’দিনব্যাপী ‘স্টাডি ইন ইন্ডিয়া’ শীর্ষক শিক্ষা মেলা শুরু
   আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু মক্কায়
   কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ
   আজকের আবহাওয়া
   আগামীকাল হুমায়ুন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী
   সৌদি পৌঁছেছেন ২০ হাজার ৯৪২ হজযাত্রী
   শুধুমাত্র ভাতার উপর নির্ভরশীল হলে চলবে না: প্রধানমন্ত্রী
   আজ ৩০ লাখ শহীদদের সম্মানে ৩০ লাখ গাছের চারা রোপণ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
   আজ ঢাকা আসছেন জার্মান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
   ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতিতে ভাতা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
   বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শূন্যপদের তালিকা চেয়ে ‍বিজ্ঞপ্তি
   সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
   ৩০ লাখ শহীদদের সম্মানে ৩০ লাখ গাছের চারা রোপণ করা হবে কাল
   পবিত্র হজ পালন করতে এসে মক্কায় বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু
   আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় নারী ক্রিকেট দলকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন
   জনগণ ভোট দিলে আছি, না দিলে নেই: প্রধানমন্ত্রী
   আজ থেকে মাস্টার্স শেষপর্ব বিশেষ পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু
   ৭৬১৭ জন হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন
   মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদের স্মৃতির সম্মানে ৩০ লাখ গাছের চারা রোপণ করা হবে
   মিয়ানমার সংলাপে আছে, তবে কাজ করছে না: কেরিকে প্রধানমন্ত্রী
   সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় দেশ আজ দানাদার খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ – কৃষিমন্ত্রী
   রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন ও সন্ত্রাস দমনে পাশে থাকবে ভারত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
   সব বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে: রাজনাথ সিং
   জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের ৪ ক্ষুদে জীববিজ্ঞানী
   শতাব্দীর দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ ২৭ জুলাই
   সৌদি পৌঁছেছেন ২৩৭১ বাংলাদেশি হজযাত্রী
   শান্তি-সম্প্রীতির বার্তা দিয়ে উদযাপিত হলো রথযাত্রা
   প্রতিবেশীর সঙ্গে সমস্যার সমাধান আলোচনায়: প্রধানমন্ত্রী


  পুরনো সংখ্যা