logo
   প্রচ্ছদ  -   জাতীয়

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।
Posted on Aug 13, 2017 12:09:22 PM.

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত আসামি জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল শুনানির জন্য আগামী ১০ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।


একই সঙ্গে আগামী ২৪ আগস্টের মধ্যে দুই আসামি এবং রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলের সারসংক্ষেপ আদালতে জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগ শুনানির জন্য এই দিন ধার্য করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং আসামি জামায়াত নেতা আজহারুলের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদিন এবং সৈয়দ মো. কায়সারের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান।

এ টি এম আজহারুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার রায় ঘোষণা করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৫তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি ষষ্ঠ রায়। রায়ে বলা হয়, আসামি আজহারের বিরুদ্ধে আনীত ছয়টি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে ২, ৩ ও ৪ নম্বর অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ, ৫ নম্বর অভিযোগে তাকে ২৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশ ও ৬ নম্বর অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

১ নম্বর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে ওই অভিযোগ থেকে অব্যাহতি (খালাস) দেওয়া হয়। এ মামলায় ট্রাইব্যুনালের আদেশে রাজধানীর মগবাজারে নিজ বাসা থেকে ২০১২ সালের ২২ আগস্ট আজহারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৪তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি পঞ্চম রায়। কায়সারকে ২০১৩ সালের ২১ মে গ্রেপ্তার করা হয়। শারীরিক অসুস্থতার কারণে বিচার চলাকালে পুরো সময় তিনি শর্তসাপেক্ষে জামিনে ছিলেন। এ দুই আসামিই ট্রাইব্যুনালের দণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের করেন।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বাধা দেওয়া হচ্ছে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
   আইসিটি বিষয়ক বিশেষ শহর গড়তে অর্থমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ
   আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট চাইলেন প্রধানমন্ত্রী
   সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ
   ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ শুরু
   আবার চালু হচ্ছে ১০ টাকা কেজি দরে চাল কর্মসূচি : কামরুল
   গণতন্ত্র ও সংবিধান সমুন্নত রাখতে সেনাবাহিনীর প্রতি আহবান প্রধানমন্ত্রীর
   প্রধানমন্ত্রী নাটোর পৌঁছেছেন
   রাষ্ট্রপতি সিঙ্গাপুরে
   আজ বিশ্ব স্কাউট দিবস
   জাতিসংঘ স্থায়ী মিশনে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
   ভাষার ব্যবহার ভুলে গেলে চলবে না : প্রধানমন্ত্রী
   বাংলায় সাইনবোর্ড না লিখলে লাইসেন্স বাতিল!
   আজ রাজশাহী সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
   মহান ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন আইজিপি
   প্রধানমন্ত্রী রাজশাহী যাচ্ছেন কাল
   শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের ঢল
   ২১ বিশিষ্ট নাগরিকের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী
   আজ মহান একুশে ফেব্রুয়ারি
   একুশের চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধকে ধারণ করে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী
   ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় অমর একুশের চেতনা অনুপ্রেরণার অবিরাম উৎস : রাষ্ট্রপতি
   একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন
   ‘স্বাধীনতা পুরস্কার-২০১৮’র জন্য মনোনীত ১৬ জন
   কিভাবে পেলাম ২১ শে ফেব্রুয়ারি
   ২১ বিশিষ্ট নাগরিকের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী
   আগামী নির্বাচন যথাসময়েই অনুষ্ঠিত হবে : প্রধানমন্ত্রী
   নির্বাচন আগেও ঠেকাতে পারেনি, আগামীতেও পারবে না
   দেশে মসজিদের সংখ্যা আড়াই লাখ
   স্পিকারের সাথে ইউনিসেফ-এর উপ-আঞ্চলিক পরিচালকের সাক্ষাৎ
   আজ বিজয় সরকারের ১১৬তম জন্মজয়ন্তী


  পুরনো সংখ্যা