logo
   প্রচ্ছদ  -   জাতীয়

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।
Posted on Aug 13, 2017 12:09:22 PM.

মানবতাবিরোধী আজহার-কায়সারের আপিল শুনানি ১০ অক্টোবর।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত আসামি জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম এবং সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল শুনানির জন্য আগামী ১০ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।


একই সঙ্গে আগামী ২৪ আগস্টের মধ্যে দুই আসামি এবং রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলের সারসংক্ষেপ আদালতে জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আপিল বিভাগ শুনানির জন্য এই দিন ধার্য করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং আসামি জামায়াত নেতা আজহারুলের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদিন এবং সৈয়দ মো. কায়সারের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান।

এ টি এম আজহারুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার রায় ঘোষণা করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৫তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি ষষ্ঠ রায়। রায়ে বলা হয়, আসামি আজহারের বিরুদ্ধে আনীত ছয়টি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে ২, ৩ ও ৪ নম্বর অভিযোগে তাকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ, ৫ নম্বর অভিযোগে তাকে ২৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশ ও ৬ নম্বর অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

১ নম্বর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে ওই অভিযোগ থেকে অব্যাহতি (খালাস) দেওয়া হয়। এ মামলায় ট্রাইব্যুনালের আদেশে রাজধানীর মগবাজারে নিজ বাসা থেকে ২০১২ সালের ২২ আগস্ট আজহারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনাল। এটি ট্রাইব্যুনালের ১৪তম রায়। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটি পঞ্চম রায়। কায়সারকে ২০১৩ সালের ২১ মে গ্রেপ্তার করা হয়। শারীরিক অসুস্থতার কারণে বিচার চলাকালে পুরো সময় তিনি শর্তসাপেক্ষে জামিনে ছিলেন। এ দুই আসামিই ট্রাইব্যুনালের দণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের করেন।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   রাজধানীতে আজ থেকে গৃহায়ন অর্থায়ন মেলা শুরু
   প্রতিটি ইউনিয়নে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট : জয়
   উত্তরা থেকে চেরাগআলী পর্যন্ত উড়াল সেতু
   এতিম রোহিঙ্গা শিশুদের সুরক্ষায় ‘শিশু পল্লী’ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার
   বাংলাদেশে পেপ্যালের ‘জুম সার্ভিস’ চালু
   চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত
   আজ শ্যামাপূজা ও দীপাবলি উৎসব
   বায়োমেট্রিক নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ২ লাখের ঊর্ধ্বে
   বাংলাদেশের ইসি অন্য দেশের চেয়ে বেশি স্বাধীনতা ভোগ করছে : সিইসি
   রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের মানবতার ভূয়সী প্রশংসা মার্কিন রাষ্ট্রদূতের
   পুলিশকে আহত করেও ছাড় পেলনা ছিনতাইকারীরা
   জাতিসংঘের মহাসচিবের সাথে বৈঠক করেছেন স্পিকার
   খোকসায় কালী মূর্তির মাথা ভেঙে নিয়ে গেল দুর্বৃত্তরা
   জাপানি বিনিয়োগের আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি
   মুক্তিযুদ্ধের গেরিলা আবুল মাসুদ সাদেক চুল্লুর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
   আজ বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস
   বিশ্বব্যাংকের স্থগিতকৃত ঋণ মিয়ানমারেই থাকছে
   বীর মুক্তিযোদ্ধা চুল্লুর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
   মুক্তিযোদ্ধা চুল্লুর দাফন আগামীকাল
   পাঁচ দফা প্রস্তাবেই রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান সম্ভব : প্রধানমন্ত্রী
   যুদ্ধ নয়, আলোচনায় সমাধান: প্রধানমন্ত্রী
   কর্মস্থলে অনুপস্থিত চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর
   রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপন করবে মালয়েশিয়া
   প্রধানমন্ত্রীকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন
   ১২ জানুয়ারি থেকে বিশ্ব ইজতেমা শুরু
   গঠিত হলো বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি
   আজ বিশ্ব খাদ্য দিবস
   নাফ নদীতে আবারও নৌকাডুবি: আট রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার
   সাবের হোসেন চৌধুরী রাশিয়ার সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত
   ‘ব্লু হোয়েল নয়, ব্ল্যাকমেইলিংয়ের’ শিকার হয়ে আত্মহত্যা করেছে মেধাবী ছাত্রী স্বর্ণা


  পুরনো সংখ্যা