logo
   প্রচ্ছদ  -   সম্পাদকীয়

মহিমান্বিত রজনী লাইলাতুল বরাত
Posted on Jul 13, 2015 04:24:03 PM.


মুছা খালেদ: লাইলাতুল কদর এমন মহিমান্বিত বরকতময় এ জন্য যে এ রাতের শ্রেষ্ঠত্ব, মাহাত্ম্য ও মর্যাদার সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো এ গৌরবময় রজনীতে মানবজাতির পথপ্রদর্শক ও মুক্তির সনদ মহাপবিত্র ঐশীগ্রন্থ আল-কোরআন অবতীর্ণ হয়েছে।

একদিন নবী করিম (সা.) বনী ইসরাইলের শামউন নামক একজন আবিদ-জাহিদের দীর্ঘকালের কঠোর সাধনা সম্পর্কে বলছিলেন। সেই মহৎ ব্যক্তি এক হাজার মাস লাগাতার দিবাভাগে সিয়াম ও জিহাদে রত থাকতেন এবং সারা রাত জেগে থেকে আল্লাহর ইবাদতের মধ্য দিয়ে অতিবাহিত করতেন। উপস্থিত সাহাবায়ে কিরাম আল্লাহর এ নেক বান্দার কঠোর সাধনার কথা শুনে বলতে লাগলেন, হায়! আমরাও যদি ওই লোকটির মতো দীর্ঘায়ু পেতাম, তাহলে আমরাও ওই রকম ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে দিবস-রজনী অতিবাহিত করতে পারতাম। এমন সময় সূরা আল-কদর নাজিল হয়। ইরশাদ হয়েছে, নিশ্চয়ই আমি তা (কোরআন) অবতীর্ণ করেছি কদরের রাতে। আর কদরের রাত সম্বন্ধে তুমি কি জানো? কদরের রাত সহস্র মাস অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ। সে রাতে ফেরেশতাগণ ও রুহ অবতীর্ণ হয় প্রত্যেক কাজে তাদের প্রতিপালকের অনুমতিক্রমে। শান্তিই শান্তি, বিরাজ করে উষার আবির্ভাব পর্যন্ত। (সূরা আল-কদর, আয়াত: ১-৫)
শবে কদরের যাবতীয় কাজের ইঙ্গিত দিয়ে এ রাতের অপার বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনে ঘোষণা করেছেন, হা-মিম! শপথ সুস্পষ্ট কিতাবের, নিশ্চয়ই আমি তা (কোরআন) এক মুবারকময় রজনীতে অবতীর্ণ করেছি, নিশ্চয়ই আমি সতর্ককারী। এ রাতে প্রত্যেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় স্থিরীকৃত হয়। (সূরা আদ-দুখান, আয়াত: ১-৪) কদরের রাতে অজস্র ধারায় আল্লাহর খাস রহমত বর্ষিত হয়। এ রাতে এত অধিকসংখ্যক রহমতের ফেরেশতা পৃথিবীতে অবতরণ করেন যে সকাল না হওয়া পর্যন্ত এক অনন্য শান্তি বিরাজ করতে থাকে। হাদিস শরিফে বর্ণিত আছে, শবে কদরে হজরত জিবরাইল (আ.) ফেরেশতাদের বিরাট এক দল নিয়ে পৃথিবীতে অবতরণ করেন এবং যত নারী-পুরুষ নামাজরত অথবা জিকিরে মশগুল থাকে, তাদের জন্য রহমতের দোয়া করেন। (মাজহারি)
লাইলাতুল কদরে পরবর্তী এক বছরের অবধারিত বিধিলিপি ব্যবস্থাপক ও প্রয়োগকারী ফেরেশতাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এতে প্রত্যেক মানুষের বয়স, মৃত্যু, রিজিক, বৃষ্টি ইত্যাদির পরিমাণ নির্দিষ্ট ফেরেশতাদের লিখে দেওয়া হয়, এমনকি এ বছর কে হজ করবে, তা-ও লিখে দেওয়া হয়। হজরত ইবনে আব্বাস (রা.)-এর বর্ণনা অনুযায়ী চারজন প্রধান ফেরেশতাকে এসব কাজে সোপর্দ করা হয়। যথাক্রমে তাঁরা হলেন হজরত ইসরাফিল (আ.), হজরত মিকাইল (আ.), হজরত আজরাইল (আ.) ও হজরত জিবরাইল (আ.)। (তাফসিরে মারেফুল কোরআন)
সহস্র মাস ইবাদতে যে সওয়াব হয়, কদরের এক রাতের ইবাদত তার চেয়ে উত্তম। লাইলাতুল কদরের অপার মহিমা ও ফজিলতময় রাতে মুমিন মুসলমানদের ওপর আল্লাহর অশেষ রহমত ও নিয়ামত বর্ষিত হয়। এ রাতে সর্বশক্তিমান আল্লাহর কাছে মাগফিরাত, নাজাত ও ক্ষমা পাওয়ার পরম সুযোগ লাভ করা যায়। নবী করিম (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি এ রাত ইবাদতের মাধ্যমে অতিবাহিত করবে আল্লাহ তার আগে করা সব গুনাহখাতা মাফ করে দেবেন। অন্য হাদিসে আছে, যে ব্যক্তি লাইলাতুল কদরে আত্মসমর্পিত হূদয় নিয়ে ইবাদতে কাটাবে, আল্লাহ তার ইজ্জত ও মর্যাদা বহুগুণ বাড়িয়ে দেবেন।
লাইলাতুল কদরে যে বা যারা আল্লাহর আরাধনায় মুহ্যমান থাকবে, তার ওপর থেকে দোজখের আগুন হারাম করে দেওয়া হবে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, সমস্ত রজনী আল্লাহ তাআলা লাইলাতুল কদর দ্বারাই সৌন্দর্য ও মোহনীয় করে দিয়েছেন, অতএব তোমরা এ বরকতময় রজনীতে বেশি বেশি তাসবিহ-তাহলিল ও ইবাদত-বন্দেগিতে রত থাকো। তিনি আরও বলেছেন, তোমরা তোমাদের কবরকে আলোকিত পেতে চাইলে কদরের রাত জেগে ইবাদতে কাটিয়ে দাও। আল্লাহর অশেষ রহমতে আবৃত এ রাত্রি যাতে বৃথা না যায় সে জন্য ইবাদত-বন্দেগি, তাসবিহ-তাহলিল এবং অন্তরের আকুতিভরা প্রার্থনার মাধ্যমে রাহমানুর রাহিমের অসীম করুণা ও ক্ষমা ভিক্ষা করা বান্দার জন্য খুবই জরুরি।
রাসুলুল্লাহ (সা.) রমজান মাসের শেষ ১০ দিন ইতিকাফ করতেন এবং বলতেন, তোমরা রমজানের শেষ ১০ রাতে শবে কদর সন্ধান করো। (বুখারি ও মুসলিম) তিনি আরও বলেছেন, মাহে রমজানের শেষ দশকের বিজোড় রাতগুলোতে তোমরা শবে কদর সন্ধান করো। (বুখারি) হাদিস শরিফে বর্ণিত আছে, যে ব্যক্তি ইমানের সঙ্গে ও সওয়াব হাসিলের উদ্দেশ্যে কদরের রাতে দণ্ডায়মান হয়, তার অতীতের সব গুনাহ মাফ করে দেওয়া হবে। (বুখারি ও মুসলিম)
সুতরাং এ রাতে তারাবি-তাহাজ্জুদসহ অধিক নফল নামাজ, পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত, আল্লাহর জিকির, একাগ্রচিত্তে দোয়া এবং অতীত পাপমোচনে বিনীতভাবে ক্ষমা প্রার্থনার জন্য পরিবার-পরিজনকে উদ্বুদ্ধ করা উচিত। ইবাদতের মাধ্যমে রাত্রি জাগরণই মুমিন মুসলমানের প্রধান কাজ। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, সিজদায় বান্দা তার প্রভুর অধিক নিকটবর্তী হয়ে থাকে। তাই তোমরা অধিক দোয়া করো। (মুসলিম) হজরত আয়েশা (রা.) একদা রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে জিজ্ঞাসা করলেন, হে রাসুলুল্লাহ! আমি যদি লাইলাতুল কদর পাই তখন কী করব? তিনি বললেন: তুমি বলবে, আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুব্বুন, তুহিব্বুল আফ্ওয়া ফাফু আন্নিঅর্থাৎ হে আল্লাহ্! নিশ্চয়ই আপনি ক্ষমাশীল, আপনি ক্ষমা করে দিতে ভালোবাসেন, অতএব, আমাকে ক্ষমা করুন। (তিরমিজি)
লাইলাতুল কদর গোটা মানবজাতির জন্য অত্যন্ত পুণ্যময় রজনী। এ রাত্রি বিশ্ববাসীর জন্য আল্লাহর অশেষ রহমত, বরকত ও ক্ষমা লাভের অপার সুযোগ এনে দেয়। এ রাত হচ্ছে মহান আল্লাহর কাছে সুখ, শান্তি, ক্ষমা ও কল্যাণ প্রার্থনার এক অপূর্ব সুযোগ। এ রাতে অবতীর্ণ মানবজাতির পথপ্রদর্শক ও মুক্তির সনদ পবিত্র কোরআনের অনুপম শিক্ষাই ইসলামের অনুসারীদের সার্বিক কল্যাণ ও উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি, ইহকালীন শান্তি ও পারলৌকিক মুক্তির পথ দেখায়।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম // এসএইচএস/এসএমএইচ //১৩জুলাই ২০১৫।





  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার কর্তৃক বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট-২০১৭ উপলক্ষে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও নির্দেশনা সংক্রান্ত প্রেস ব্রিফিং
   আদেশ
   চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা রক্ষা, সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ ও যাত্রী সেবার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে চালক ও হেলপারের প্রশিক্ষণ কর্মশালা
   আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম এর ৩৭তম বার্ষিক সভা সম্পন্ন
   চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
   চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগকে ০১টি রেকার স্পন্সর করলো সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড
   চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
   আন্তর্জাতিক কারাতে প্রতিযোগিতায় ৩য় বারের মত স্বর্ণপদক পেল সিএমপির লতা পারভীন।
   ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে পশুর হাট সংক্রান্তে হাট ইজারাদারগণের সাথে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার এর মতবিনিময় সভা এবং নিরাপত্তা পরামর্শ
   আদেশ - সিএমপি কমিশনার
   পবিত্র ঈদ-উল-আয্হা/১৭ উপলক্ষে নিরাপত্তা পরামর্শ
   পুরস্কার পেলেন সেই চট্টগ্রামের ট্রাফিক কনস্টেবল
   সিএমপির ঊর্ধ্বতন পদে রদবদল
   সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
   আদেশ- সিএমপি কমিশনার
   ভূমিকম্পে ক্ষয়ক্ষতি রোধে যা করণীয়
   রমজানে চট্টগ্রামে যানজট নিরসনে ৫৮টি স্পটে বিশেষ ট্রাফিক পুলিশ
   সিএমপির কমিউনিটি পুলিশ সপ্তাহ-২০১৭ এর সমাপনী অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও মাদক ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসন।
   সিএমপির ট্রাফিক সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।
   আবারো সেই কনস্টেবল শের আলী
   আজ হতে কমিউনিটি পুলিশিং সপ্তাহ-২০১৭ শুরু
   পবিত্র শব-ই-বরাত এর রাতে পটকা ও আতশবাজি নিষিদ্ধ: সিএমপি।
   সিএমপির ০২ নারী পুলিশ সদস্যের বাংলাদেশ মহিলা পুলিশ এওয়ার্ড ২০১৭ অর্জন
   “শুভ নববর্ষ ১৪২৪” বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানমালায় নগরবাসীর প্রতি সিএমপি’র নির্দেশনাবলীঃ
   প্রেস বিজ্ঞপ্তি
   শিশুটিকে বাঁচাতে না পাড়লে নিজের কাছেই হেরে যেতাম’
   বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টবল পদে ১০ হাজার নিয়োগ
   সিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ও নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক গণের রদবদল
   সিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার, নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক ও শহর ও যানবাহন পুলিশ পরিদর্শকগণের রদবদল।
   সিএমপি গোয়েন্দা পুলিশ কর্তৃক গোপন বৈঠকে নাশকতার পরিকল্পনা কারী ইসলামী সমাজ সংগঠনের ২৪ সদস্য গ্রেফতার।


  পুরনো সংখ্যা